সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১০:১২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
টাঙ্গাইলের মধুপুরে টিওটি প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত রাজশাহী রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ মিন্টু রহমান অতিরিক্ত সচিব পদে পদন্নোতি পেলেন কিশোরগঞ্জের সন্তান আব্দুর রউফ প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহের শেষ দিনে কাজিপুরে সচেতনামূলক কর্মশালা ও পুরস্কার বিতরণী সুন্দরগঞ্জে গ্রাম পুলিশদের অবহিতকরণ প্রশিক্ষণ শুরু পঞ্চগড়ে জেলা প্রশাসকের গাড়ি ভাঙচুর, যুবক আটক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী হোসেনের মৃত্যুতে রাসিক মেয়রের শোক রাসিক‘কে সুদৃঢ় আর্থিক ভিত্তির উপর দাঁড় করতে চাই : মেয়র লিটন বাগেরহাট বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়  নির্বাচিত হচ্ছেন তিন প্রার্থী  তথ্য ও প্রযুক্তির মাধ্যমে ৯টি হারানো ফোন উদ্ধার করে মালিকদের ফিরিয়ে দিল সরিষাবাড়ী থানা পুলিশ
নোটিশ :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘যমুনা প্রতিদিন ডট কম’

কুড়িগ্রামে আলু তোলার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষক

কুড়িগ্রামে আলু চাষে উৎপাদন ভালো হওয়ায় কৃষকরা খুশি।আলু চাষের উপযোগী কুড়িগ্রাম জেলার মাটি।তাই অধিক লাভের আশায় প্রতিটি মৌসুমেই এই জেলার কৃষকরা বিভিন্ন জাতের আলু চাষাবাদ করে থাকেন।বর্তমানে আধুনিক কৃষিপ্রযুক্তি ব্যবহার করে কৃষকরা আলু চাষে ব্যাপক সাফল্য এনেছেন।

১৭ মার্চ রবিবার সরেজমিনে ও বিভিন্ন এলাকায় খোঁজখবর নিয়ে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে কুড়িগ্রাম জেলার বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন জাতের দেশি ও হাইব্রিড লাভজনক আলু চাষাবাদ করেছেন কৃষকরা।বর্তমান আলু তোলার কাজে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন কৃষক কৃযানিরা।অন্যান্য ফসলের তুলনায় আলু চাষে পরিশ্রম ও খরচ তুলনামূলকভাবে কম হওয়ায় কৃষকেরা লাভবান হব চাষাবাদের খরচ তোলার পড় পারিবারিক চাহিদা মেটাতে পারব।

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পাঁচগাছি ইউনিয়নের গোবিন্দপুর এলাকার কৃষক আব্দুল মালেক জানান, এ বছরে আলু উৎপাদন ভালো হলেও দাম কম হওয়ায় চাষাবাদের খরচ তুলতে হিম সিম খাচ্ছি।বর্তমানে আমরা আলু তোলা নিয়ে ব্যস্ত।

কৃষক হরলিস জানান, একদিকের জমিতে করছি আলু চাষ তা উত্তোলন করতেছি পাশের জমিতে আবাদ করছি পটল চাষ, গাছগুলো এখন পরিপক্ব হতে চলেছে।আর আলুর ভালো ফলন হয়েছে বাজারে দাম ভালো থাকলে লাভজনক হতে পারব।উৎপাদিত আলু বিদেশে রফতানি বাড়ানো, আলুর বহুমুখী ব্যবহার ও নানামুখী খাবার তৈরিতে সরকার নানা উদ্যোগ গ্রহণ করলে আমরা আরও লাভবান হতে পারবো।

উলিপুর উপজেলা কৃষি অধিদপ্তরের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা সাজেদুল করিম জানান, জেলার মাটি উপযোগী হওয়ায় বিভিন্ন জাতের দেশীয় ও হাইব্রিড জাতের আলু চাষাবাদ হয়ে থাকে।তন্মধ্যে ডায়মন্ড, কাটিলাল, অ্যাসটেরিক, লাল পাকড়ি, ফাঁটা পাকড়ি ও গ্রানুলা জাতের আলু বেশি চাষ হয়ে থাকে।আলু চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ এবং মাঠ পর্যায়ে গিয়ে বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে।

সদর উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নের গারুহারা গ্রামের রফিকুল ইসলাম বলেন, আলু চাষাবাদে তেমন কোনো বাড়তি পরিচর্যার প্রয়োজন হয় না।তাই তারা এবার ১ একর জমিতে গ্রানুলা জাতের আলু চাষ করেছেন।আশা প্রতি বিঘা জমি থেকে ১২০ মণ আলু উৎপাদন হবে।প্রতি মন আটশত থেকে ১০০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।আলু চাষ করে লাভের আশা করছেন মার্চ মাসে আলুর দাম ভালো পাওয়ায় পরিবারের সবাই খুশি।এই জেলার উৎপাদিত আলু স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি হয়ে থাকে।

কুড়িগ্রাম জেলা খামার বাড়ি উপ-পরিচালক কৃষিবিদ বিপ্লব কুমার মহন্ত এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন, জেলায় চলতি মৌসুমে ৭ হাজার হেক্টর জমিতে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা করা হলো তা ৭ হাজার ৭৫ হেক্টর জমিতে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন হয়েছে।বর্তমান আলু উত্তোলন করা হচ্ছে আশা, আশানুরূপ করা হচ্ছে।হেক্টর প্রতি ২৪ টন উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা যাচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × four =


অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ

x