বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৫১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
প্রবীণ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ শরীফের মৃত্যুতে রাজশাহী জাসদের শোক সারিয়াকান্দিতে পুলিশের অভিযানে মাদক ব্যবসায়ীসহ গ্রেফতার-২ সারিয়াকান্দি উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত রামেবির সিন্ডিকেট সদস্য হলেন এমপি আব্দুল ওয়াদুদ দারা ও ওমর ফারুক সাবু স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত ডাক বাংলা প্রকাশনী’র ৩য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত বিদেশে নেয়ার নাম করে অর্থ আত্মসাৎ,থানায় অভিযোগ বিরামপুরের ৪নং দিওড় ইউনিয়নে ভিডব্লিউবির চাল বিতরণ বিএমএসএফ’র সাংগঠনিক কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা সিরাজগঞ্জে বিএসটিআইয়ের অভিযানে মান সনদ না থাকায় ইটভাটা ও রেস্টুরেন্টকে জরিমানা
নোটিশ :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘যমুনা প্রতিদিন ডট কম’

পুলিশকে সাক্ষ্য দেওয়ায় ৩ সাক্ষীকে আ.লীগ নেতার মারধর

চট্রগ্রামের বাঁশখালীতে পুলিশকে সাক্ষ্য দেওয়ার জের ধরে ৩ জন সাক্ষীর ওপর মারধরের ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (৬ জুন) বিকেল ৪টার দিকে ছনুয়া ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের সুলতান সিকদার পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আহতরা হলেন, ছনুয়া ইউনিয়নের সুলতান সিকদার পাড়ার মৃত মতিউর রহমানের পুত্র আবুল হাশেম (৬৫), আবুল হাশেমের স্ত্রী রুবি আক্তার (৩৫), ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা কন্যা রিনা আক্তার (২৫)।আহতরা বর্তমানে বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।

জানা যায়, গত ৫ জুন সকালে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আবুল হাশেমের স্ত্রী রুবি আক্তারকে দোকানে যাওয়ার পথে মারধর করেন ৩ নম্বর ওয়ার্ডের আ.লীগ সভাপতি আবদুল মান্নান ও তাঁর সঙ্গীয় লোকজন।এ ঘটনায় আবদুল মান্নান সহ ৪ জনকে বিবাদী করে বাঁশখালী থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী রুবি আক্তার।পরদিন ৬ জুন বাঁশখালী থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আবদুল খালেক ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে তদন্ত করতে আসেন।এসময় পুলিশকে সাক্ষী দিতে যান রুবি আক্তার, আবুল হাশেম ও রিনা আক্তার।সাক্ষী দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে আবদুল মান্নান তার লোকজন নিয়ে ৩ সাক্ষীকে মারধর করেন।

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার রাতে ভুক্তভোগী আবুল হাশেম বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে বাঁশখালী থানায় এজাহার দায়ের করেছেন।

এ ঘটনায় আসামিরা হলেন-ছনুয়া সুলতান সিকদার পাড়ার মৃত জাফর আহমদের ছেলে আবদুল মান্নান (৩৫), মো. ইদ্রিস (৪৮), আবদু শুক্কুর (৪১), আবদুল মান্নানের ছেলে মো.আরাকান (১৮), মৃত মোজাফফর আহমদের ছেলে মো. ইউনুস (৫৩), লুলু আক্তার (৩৫), পারভীন আক্তার (২০), রমিজ উদ্দিন (২২), ফয়েজ উল্লাহ (২২), শফিকুর রহমান (২৪)।

অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল মান্নান বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা সাক্ষী দিয়েছে।আমি তাদের মারধর করিনি।এসব আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন বলেন, ‘এ ঘটনায় এজাহার নিয়েছি।তদন্ত পূর্বক জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ