ঢাকা ১০:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল 'যমুনা প্রতিদিন ডট কম' এ সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।

ফেনীতে গণতন্ত্র হত্যা দিবসে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের ১০ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ

দেলোয়ার হোসাইন,ফেনীঃ
  • আপডেট সময় : ০৮:২৫:৩১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ ২০ বার পড়া হয়েছে
যমুনা প্রতিদিন অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

গণতন্ত্র হত্যা দিবসে গনতন্ত্র পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে ১০ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে ফেনীতে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২৫ জানুয়ারি) বিকাল ৩ টায় ফেনী ইসলামপুর রোড়স্থ ফেনী জেলা বিএনপির কার্যালয় প্রাঙ্গণে গণতন্ত্র হত্যা দিবসে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ১০ দফা বাস্তবায়নের দাবীতে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশটি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ফেনী জেলা বিএনপির আহবায়ক শেখ ফরিদ বাহার এর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন আলাল এর সঞ্চালনায় উক্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহবায়ক অধ্যাপক এম এ খালেক, এয়াকুব নবী, আলাউদ্দিন গঠন,ফেনী সদর উপজেলা বিএনপির, সদস্য সচিব আমান উদ্দিন কায়সার সাব্বির,সোনাগাজী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন সেন্টু, ফেনী পৌর বিএনপির সদস্য সচিব মেজবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া, ফুলগাজী উপজেলা বিএনপির আহবায়ক ফখরুল আলম ভিপি স্বপন,পরশুরাম উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব ইব্রাহীম খলিল মনি,জেলা কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, জেলা শ্রমিক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হুমায়ুন চৌধুরী, জেলা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ভিপি বেলাল, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খন্দকার, সাংগঠনিক সম্পাদক নঈম উল্যাহ চৌধুরী ভরাত,জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সাইদুর রহমান জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক এস এম কায়সার এলিন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সালাউদ্দিন মামুন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকের হোসেন রিয়াদ।

এসময় বক্তারা বলেন শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ তা পেয়েছিলো পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তান কিন্তু পাকিস্তানিরা তাঁর উপর ক্ষমতা হস্তান্তর করেনি তখন তিনি তাদের বিরুদ্ধে স্বাধিনতা সংগ্রাম আন্দোলনের কথা বলেছিলেন। আর তিনি ক্ষমতা পাওয়ার পর সংসদে এক মিনিটের ভিতর কন্ঠভোটের মাধ্যমে একনায়কতন্ত্র সরকার গঠন করেন।এবং তাঁর কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার ফিল খানায় ৫৭ জন সেনাসদস্য হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে একনায়কতন্ত্র দল ক্ষমতায় টিকে রাখতে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে। ইনশাআল্লাহ এই হত্যাকাণ্ডের বিচার এই বাংলার মাটিতেই হবে এর থেকে রেহাই পাওয়ার কোন সুযোগ নেই।

বক্তারা সরকারের দলীয় নেতাদের সমালোচনা করে বলেন সরকার দলীয় নেতারা জনগনের টাকা মেরে খাচ্ছে ,বালু মহল গড়ছে ,জায়গা দখল করে খাচ্ছে এর জবাব জনগন সুষ্ঠু নির্বাচনে ভোটের মাধ্যমে দিবে।বিএনপির এই আন্দোলন সহ যে সকল কর্মসূচি আগামীতে আসবে সকল নেতাকর্মীকে সে সকল কর্মসূচি সফল করতে মাঠে থাকার আহ্বান জানান।

উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি ও এর সকল অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ফেনীতে গণতন্ত্র হত্যা দিবসে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের ১০ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ

আপডেট সময় : ০৮:২৫:৩১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৩

গণতন্ত্র হত্যা দিবসে গনতন্ত্র পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে ১০ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে ফেনীতে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২৫ জানুয়ারি) বিকাল ৩ টায় ফেনী ইসলামপুর রোড়স্থ ফেনী জেলা বিএনপির কার্যালয় প্রাঙ্গণে গণতন্ত্র হত্যা দিবসে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ১০ দফা বাস্তবায়নের দাবীতে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশটি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ফেনী জেলা বিএনপির আহবায়ক শেখ ফরিদ বাহার এর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন আলাল এর সঞ্চালনায় উক্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহবায়ক অধ্যাপক এম এ খালেক, এয়াকুব নবী, আলাউদ্দিন গঠন,ফেনী সদর উপজেলা বিএনপির, সদস্য সচিব আমান উদ্দিন কায়সার সাব্বির,সোনাগাজী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন সেন্টু, ফেনী পৌর বিএনপির সদস্য সচিব মেজবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া, ফুলগাজী উপজেলা বিএনপির আহবায়ক ফখরুল আলম ভিপি স্বপন,পরশুরাম উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব ইব্রাহীম খলিল মনি,জেলা কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, জেলা শ্রমিক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হুমায়ুন চৌধুরী, জেলা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ভিপি বেলাল, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খন্দকার, সাংগঠনিক সম্পাদক নঈম উল্যাহ চৌধুরী ভরাত,জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সাইদুর রহমান জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক এস এম কায়সার এলিন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সালাউদ্দিন মামুন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকের হোসেন রিয়াদ।

এসময় বক্তারা বলেন শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ তা পেয়েছিলো পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তান কিন্তু পাকিস্তানিরা তাঁর উপর ক্ষমতা হস্তান্তর করেনি তখন তিনি তাদের বিরুদ্ধে স্বাধিনতা সংগ্রাম আন্দোলনের কথা বলেছিলেন। আর তিনি ক্ষমতা পাওয়ার পর সংসদে এক মিনিটের ভিতর কন্ঠভোটের মাধ্যমে একনায়কতন্ত্র সরকার গঠন করেন।এবং তাঁর কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার ফিল খানায় ৫৭ জন সেনাসদস্য হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে একনায়কতন্ত্র দল ক্ষমতায় টিকে রাখতে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে। ইনশাআল্লাহ এই হত্যাকাণ্ডের বিচার এই বাংলার মাটিতেই হবে এর থেকে রেহাই পাওয়ার কোন সুযোগ নেই।

বক্তারা সরকারের দলীয় নেতাদের সমালোচনা করে বলেন সরকার দলীয় নেতারা জনগনের টাকা মেরে খাচ্ছে ,বালু মহল গড়ছে ,জায়গা দখল করে খাচ্ছে এর জবাব জনগন সুষ্ঠু নির্বাচনে ভোটের মাধ্যমে দিবে।বিএনপির এই আন্দোলন সহ যে সকল কর্মসূচি আগামীতে আসবে সকল নেতাকর্মীকে সে সকল কর্মসূচি সফল করতে মাঠে থাকার আহ্বান জানান।

উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি ও এর সকল অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।