ঢাকা ০৯:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মার্চ ২০২৩, ১২ চৈত্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিশেষ বিজ্ঞপ্তি ::
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল 'যমুনা প্রতিদিন ডট কম' এ আপনাকে স্বাগতম...
সংবাদ শিরোনাম ::
কালীগঞ্জে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ,স্থানীয় দালাল চক্রের রফাদফার চেষ্টা দান-সাদকায় মানুষের দুনিয়া ও পরকালের জীবন হয় সম্মান ও গৌরব মণ্ডিত সাংবাদিককে রেল কর্মকর্তার হুমকির প্রেক্ষিতে মহাপরিচালক বরাবর অভিযোগ ৪০০ পথচারী রোজাদারের হাতে ইফতারি তুলে দিলেন  মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার রাজশাহী মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত মান্দায় প্রতিপক্ষের মারপিটে নারীসহ আহত ৫ সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম নুনু মিয়া গলাচিপায় জেলা প্রশাসককে ফুলেল শুভেচ্ছা ঈশ্বরদীতে একই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৮ শিক্ষক-কর্মচারীকে শোকজ মোরেলগঞ্জে বিশ্ব যক্ষা দিবস পালন

পঞ্চগড়ে কৃষকের জমি জোরপূর্বক দখলের অভিযোগ

উমর ফারুক,পঞ্চগড় থেকেঃ
  • আপডেট সময় : ০৯:১৩:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩ ১০৮ বার পড়া হয়েছে
যমুনা প্রতিদিন অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পঞ্চগড়ের তেতুলিয়া উপজেলায় সুধীর চন্দ্র রায় নামের এক কৃষকের এক একর জমি জোরপূর্বক দখলের অভিযোগ উঠেছে

শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি ) সকালে তেঁতুলিয়া উপজেলার ২ নং তিরনইহাট ইউনিয়নের সরকারপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।

এ বিষয়ে পঞ্চগড় নিউ প্রেসক্লাব বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেন সুধীর চন্দ্র।

তিনি অভিযোগ সূত্রে জানান, একই এলাকার মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে মো. ওয়াজেদ হোসেন ডাবলু, মন্ডলপাড়া গ্রামের মৃত অসির উদ্দীনের ছেলে মোঃ শাহাজাহান, শহিদুল ইসলামের ছেলে,মোঃ রবিউল ইসলাম সহ অজ্ঞাতনামা আরোও কয়েকজন মিলে আমার বাবার রেকর্ডীয় জমি ওয়ারীশ সূত্রে দীর্ঘদিন যাবৎ ভোগ দখল করে আসছি।আমরা বর্তমানে খতিয়ানের মালিক।আমরা সংখ্যালঘু হওয়ার কারণে জমি জমা ক্ষমতার বলে জোর পূর্বক ২.৭৫ একর জমির মধ্যে ১,০০ একর জমি আমাকে না জানিয়ে কোন কাগজ ছারাই তাদের দখলে নিয়েছে। এসময় ওয়াজেদ হোসেন ডাবলু ও তার সঙ্গীরা মিলে তুলশিয়াবিল মৌজার জে এল নং- ০৬, এস এ খতিয়ান নং- ২৩৮, এস এ দাগ নং- ৫৫৯ দাগে ২.৭৫ একর জমির মধ্যে ১.০০ একর জমি দখল করে। আমি সহ আমার পরিবার বাঁধা দিতে গেলে তারা আমাদেরকে লাঠী সোটা নিয়ে তারা করে এবং প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। আমরা জীবন বাঁচাতে পালিয়ে আসি এবং আমি তাৎক্ষণিক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে বিষয়টা অবগত করি। এবং শুক্র, শনি কোর্ট বন্ধ থাকার কারণে আমি কোটে গিয়ে মামলা করতে পারিনি।তবে কোর্ড খুলেই আমি ন্যায় বিচারের জন্য মামলা করব এবং এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবী করেন।

এ বিষয় অভিযুক্ত ওয়াজেদ হোসেন ডাবলু বলেন,আমার বাবা মৃত নুরুল ইসলাম ১৯৫৭ সালে মুকুন্দরায় এবং সুরেন্দ্রনাথের কাছ থেকে জমি ক্রয় করে, যা দলিল নং হচ্ছে ৩১৫২, খতিয়ান নং ২৩৮ এবং জমির পরিমাণ ১ একর ৭৫ শতক জমি ক্রয় করি এবং ১৯৫৯ সালে সুরেন্দ্রনাথের কাছ থেকে ৪৫৮৬ দলিলের ২৩৮ খতিয়ানে ১ একর ক্রয় করি, জমিগুলো ক্রয় করার পর থেকে তাদের কাছে চুক্তি হিসেবে জমিগুলো ছিল।এখন আমরা তাদের কাছ থেকে ক্রয় কিত জমিগুলো দখল চাইলে তারা দখল দিতে অস্বীকার করে।আমরা বাধ্য হয়ে ৫৫৯ দাগে ১ একর জমি দখল করি।আমাদের জমি আমরা ফিরে পেলে এই জমি আমরা ছেড়ে দেব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

পঞ্চগড়ে কৃষকের জমি জোরপূর্বক দখলের অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৯:১৩:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩

পঞ্চগড়ের তেতুলিয়া উপজেলায় সুধীর চন্দ্র রায় নামের এক কৃষকের এক একর জমি জোরপূর্বক দখলের অভিযোগ উঠেছে

শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি ) সকালে তেঁতুলিয়া উপজেলার ২ নং তিরনইহাট ইউনিয়নের সরকারপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।

এ বিষয়ে পঞ্চগড় নিউ প্রেসক্লাব বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেন সুধীর চন্দ্র।

তিনি অভিযোগ সূত্রে জানান, একই এলাকার মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে মো. ওয়াজেদ হোসেন ডাবলু, মন্ডলপাড়া গ্রামের মৃত অসির উদ্দীনের ছেলে মোঃ শাহাজাহান, শহিদুল ইসলামের ছেলে,মোঃ রবিউল ইসলাম সহ অজ্ঞাতনামা আরোও কয়েকজন মিলে আমার বাবার রেকর্ডীয় জমি ওয়ারীশ সূত্রে দীর্ঘদিন যাবৎ ভোগ দখল করে আসছি।আমরা বর্তমানে খতিয়ানের মালিক।আমরা সংখ্যালঘু হওয়ার কারণে জমি জমা ক্ষমতার বলে জোর পূর্বক ২.৭৫ একর জমির মধ্যে ১,০০ একর জমি আমাকে না জানিয়ে কোন কাগজ ছারাই তাদের দখলে নিয়েছে। এসময় ওয়াজেদ হোসেন ডাবলু ও তার সঙ্গীরা মিলে তুলশিয়াবিল মৌজার জে এল নং- ০৬, এস এ খতিয়ান নং- ২৩৮, এস এ দাগ নং- ৫৫৯ দাগে ২.৭৫ একর জমির মধ্যে ১.০০ একর জমি দখল করে। আমি সহ আমার পরিবার বাঁধা দিতে গেলে তারা আমাদেরকে লাঠী সোটা নিয়ে তারা করে এবং প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। আমরা জীবন বাঁচাতে পালিয়ে আসি এবং আমি তাৎক্ষণিক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে বিষয়টা অবগত করি। এবং শুক্র, শনি কোর্ট বন্ধ থাকার কারণে আমি কোটে গিয়ে মামলা করতে পারিনি।তবে কোর্ড খুলেই আমি ন্যায় বিচারের জন্য মামলা করব এবং এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবী করেন।

এ বিষয় অভিযুক্ত ওয়াজেদ হোসেন ডাবলু বলেন,আমার বাবা মৃত নুরুল ইসলাম ১৯৫৭ সালে মুকুন্দরায় এবং সুরেন্দ্রনাথের কাছ থেকে জমি ক্রয় করে, যা দলিল নং হচ্ছে ৩১৫২, খতিয়ান নং ২৩৮ এবং জমির পরিমাণ ১ একর ৭৫ শতক জমি ক্রয় করি এবং ১৯৫৯ সালে সুরেন্দ্রনাথের কাছ থেকে ৪৫৮৬ দলিলের ২৩৮ খতিয়ানে ১ একর ক্রয় করি, জমিগুলো ক্রয় করার পর থেকে তাদের কাছে চুক্তি হিসেবে জমিগুলো ছিল।এখন আমরা তাদের কাছ থেকে ক্রয় কিত জমিগুলো দখল চাইলে তারা দখল দিতে অস্বীকার করে।আমরা বাধ্য হয়ে ৫৫৯ দাগে ১ একর জমি দখল করি।আমাদের জমি আমরা ফিরে পেলে এই জমি আমরা ছেড়ে দেব।