মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪, ১০:০০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজশাহী বিভাগের ১৯ উপজেলার চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যানের শপথ গ্রহণ দ্রুত সময়ে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ বিষয়ে রাসিকের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত ‘প্রধানমন্ত্রী ঘর দিছে,বৃষ্টির দিনেও শান্তিতে থাকতে পারমু’ বর্তমান কমিটিকে অবৈধ ঘোষণা করে আওয়ামী আইনজীবীদের আহ্বায়ক কমিটি গঠন পবায় সংবাদ প্রকাশের পরেও থামছেনা পুকুর খননের মাটি বিক্রি সারিয়াকান্দিতে ভূমিসেবা সপ্তাহে বির্তক,কুইজ প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ লফস এর আয়োজনে উম্মুক্ত স্থানের বাজেট বরাদ্দ ও গাইড লাইন শীর্ষক আলোচনা সভা সারিয়াকান্দিতে ওয়ার্ড কমিটির সমন্বয় (wc) সভা অনুষ্ঠিত সারিয়াকান্দিতে ওয়ার্ড কমিটির সমন্বয় (wc) সভা অনুষ্ঠিত আসামীর বোনের বিরুদ্ধে মামলার বাদীকে হত্যার চেষ্টা,থানায় অভিযোগ
নোটিশ :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘যমুনা প্রতিদিন ডট কম’

গাড়ির গতিসীমা নিয়ন্ত্রণ করলে দুর্ঘটনা কমিয়ে আনা সম্ভব-এডিসি হেলেনা আকতার

রাজশাহী মহানগরীতে সড়ক দুর্ঘটনার হার বেড়ে যাওয়ার প্রধান কারণ গাড়ির উচ্চ গতিসীমা।ট্রাফিক আইন না মেনে গাড়ির গতি সীমা ৭০-৮০ কিলোমিটারের উপরে রাখার কারণে বেশিরভাগ দুর্ঘটনা হয়ে থাকে।বাস, ট্রাক, কার, সিএনজি, ব্যাটারি চালিত অটো ও রিক্সা যেন গতিসীমা নিয়ন্ত্রণ রেখে গাড়ি চালায় সেই লক্ষ্যে মাঠে নামেন আরএমপির অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) হেলেনা আকতার।

আজ ৫ জুন (বুধবার) সকাল ১১:৩০ ঘটিকায় রাজশাহী মহানগরীর আম চত্বর, গোরহাঙ্গা সিএনজি স্ট্যান্ড, বাস টার্মিনাল, ভদ্রা বাসস্ট্যান্ড সহ রাজশাহীর বিভিন্ন বাসের কাউন্টারে স্বয়ং নিজে গিয়ে লিফলেট বিতরণ করেন হেলেনা আকতার অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক)।

এ সময় হেলেনা আকতারের সাথে ছিলেন মোঃ মাহামুদুল নবী, পুলিশ পরিদর্শক টিআই (প্রশাসন) আরএমপি, মোঃ মোবারফ হোসেন ইন্সপেক্টর বিআরটিএ।

আরএমপির অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) হেলেনা আকতার বলেন, রাস্তায় গাড়ির চালককে গাড়ির গতিসীমা মেনে চলতে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে রাজশাহীর সমস্ত মেইন পয়েন্টে বাস, ট্রাক, কার, মাইক্রো, সিএনজি, ব্যাটারি চালিত অটো রিস্কা ড্রাইভারদেরকে সচেতন করা হয়।সঠিকভাবে গাড়ির গতিসীমা রক্ষা করতে পারলে দুর্ঘটনা কমিয়ে আনা সম্ভব।প্রতিটি গাড়ির চালক যাতে ট্রাফিক আইন ও সিগন্যাল মেনে চলে সেজন্য তাদেরকে সচেতন করা হয় এবং তাদের বলা হয় অন্য চালকদের কেউ যেন তারা সচেতন করে।সবাই যদি গাড়ির গতিসীমা ঠিক রেখে ট্রাফিক আইন মেনে গাড়ি চালায় তবেই আমরা সড়ক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনতে পারব।আমার লক্ষ্য রাজশাহী মহানগরীকে যানজট মুক্ত ও সড়ক দুর্ঘটনা থেকে বাঁচিয়ে রাখা।এটা আমার একার দ্বারা সম্ভব নয় সেজন্যই প্রতিটি বাস চালক, ট্রাক চালক, সিএনজি চালক, ব্যাটারি চালিত অটো রিক্সার ড্রাইভারদের হাতে গতিশীমার নিয়ন্ত্রণের লিফলেট প্রদান করি যেন তারা সচেতন হয় এবং অন্যদেরও সচেতন করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

6 + two =


অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ

x