সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও অসাম্প্রদায়িকবোধে উজ্জ্বল ছিলেন কবি রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ : কেসিসি মেয়র জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক টমাসের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ সিংড়ায় কিশোরীকে হত্যার দায়ে যুবকের মৃত্যুদন্ড টাঙ্গাইলের মধুপুরে টিওটি প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত রাজশাহী রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ মিন্টু রহমান অতিরিক্ত সচিব পদে পদন্নোতি পেলেন কিশোরগঞ্জের সন্তান আব্দুর রউফ প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহের শেষ দিনে কাজিপুরে সচেতনামূলক কর্মশালা ও পুরস্কার বিতরণী সুন্দরগঞ্জে গ্রাম পুলিশদের অবহিতকরণ প্রশিক্ষণ শুরু পঞ্চগড়ে জেলা প্রশাসকের গাড়ি ভাঙচুর, যুবক আটক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী হোসেনের মৃত্যুতে রাসিক মেয়রের শোক
নোটিশ :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘যমুনা প্রতিদিন ডট কম’

সন্দ্বীপে বেপরোয়া ভূমিদস্যু মাটি খেঁকো সিন্ডিকেট

সন্দ্বীপে বেপরোয়াভাবে চলছে চর কেটে মাটি বিক্রির হিড়িক, বর্ষা মৌসুমে ভয়াবহ রূপ নেয় দ্বীপের চারপাশ।প্রতি বছর মেঘনা নদীতে তলিয়ে যেত গ্রামের পর গ্রাম।বিগত কয়েক বছরে সন্দ্বীপে চারপাশে মেঘনার কূল ঘেসে কয়েকমাইল নতুন চর জেগে উঠেছে।কিন্তু মাটি খেঁকো সিন্ডিকেটের বেপরোয়ায় বিলীনের পথে সন্দ্বীপের পুরাতন ভূমি জেগে ওঠা নতুন চর।এমন পরিস্থিতির মধ্যেও থামছে না মেঘনা নদীর পাড় থেকে মাটি কাটা।নদীপাড়ের মাটি কেটে ইটভাটায় বিক্রি করা হচ্ছে।

এতে একদিকে যেমন হারিয়ে যাচ্ছে চাষিদের ফসলের জমি, অন্যদিকে লাগাতার পাড়ের মাটি কেটে নেয়ায় নদীতে পানি বাড়লেই দেখা দেয় ভয়াবহ ভাঙন।

সরজমিন ঘুরে জানা যায়, সন্দ্বীপের চারপাশে মেঘনার তীর থেকে এক্সেভেটর দিয়ে কাটা হচ্ছে মাটি।প্রায় ৫ বছর ধরে চল নদীপাড়ের মাটি কেটে সরবরাহ করা হচ্ছে ইটভাটায় ও পুকুর ভরাট কাজে।স্থানীয় প্রশাসনের চোখ এড়াতে রাতের অন্ধকারেও মাটি কাটছে একাধিক চক্র।বিশেষ করে পশ্চিম সাগর পাড়ে রহমতপুর ইউনিয়নে চলছে এই মাটি খেঁকো সিন্ডিকেট বেপরোয়া।সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলে মাটিভর্তি শতাধিক ট্রাক্টর।সম্প্রতি তা বেড়েছে।আইন অমান্য করে বাদ যাচ্ছে না খাসজমি, খাল, নদীর তীর ও ফসলি জমি।

এসব মাটির শেষ ঠিকানা হচ্ছে ইটভাটা।রাজনৈতিক নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের নাম ভাঙিয়ে একাধিক সিন্ডিকেট খনন যন্ত্র দিয়ে কাটছে নদীপাড়।নামসর্বস্ব কিছু গণমাধ্যমকর্মীও এই সিন্ডিকেটে জড়িত।তারা প্রশাসনকে ম্যানেজ করার নামে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen − five =


অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ

x