বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বিদেশে নেয়ার নাম করে অর্থ আত্মসাৎ,থানায় অভিযোগ বিরামপুরের ৪নং দিওড় ইউনিয়নে ভিডব্লিউবির চাল বিতরণ বিএমএসএফ’র সাংগঠনিক কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা সিরাজগঞ্জে বিএসটিআইয়ের অভিযানে মান সনদ না থাকায় ইটভাটা ও রেস্টুরেন্টকে জরিমানা নবাবগঞ্জে জমিজামা সংক্রান্ত কলহে প্রতিপক্ষকে মারপিট ও বাড়ী ভাঙচুর-লুটপাট,থানায় মামলা সারিয়াকান্দিতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত বর্তমান সময়ের সেরা রোমান্টিক জুটি নয়ন-অধরা নাগরপুরে দুই দিনব্যাপী অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধন সারিয়াকান্দিতে যায়যায়দিন ফ্রেন্ডস ফোরামের আহ্বায়ক কমিটি গঠন তিন দিনের বাংলাদেশ সফরে ভারতীয় বিমানবাহিনীর প্রধান
নোটিশ :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘যমুনা প্রতিদিন ডট কম’

আমার ইউনিয়নের কোনো মানুষ শীতে কষ্ট পাবে না : চেয়ারম্যান মালেক মন্ডল

দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন এলাকায় শীতের তীব্রতা বৃদ্ধি পাওয়ায় বিরামপুর উপজেলার ৪নং দিওড় ইউনিয়নে কনকনে বাতাস ও শীতের তীব্রতায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন।বৈরী আবহাওয়ায় গত কয়েকদিন ধরে শীতের তীব্রতা বাড়ায় জনজীবন অচল হয়ে পড়েছে।

শীতের এ তীব্রতাকে উপেক্ষা করে শীতবস্ত্র নিয়ে অসহায় দরিদ্র মানুষদের বাড়ী বাড়ী ঘুরছেন দিওড় ইউনিয়নের ডিজিটাল রূপকার এমপি শিবলী সাদিকের আস্থাভাজন দিওড় ইউনিয়নের ডিজিটাল চেয়ারম্যান নামে পরিচিত মানবতার ফেরিওয়ালা হিসেবে পরিচিত চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মালেক মন্ডল।

সোমবার ইউনিয়নের আদিবাসী পল্লীসহ বিভিন্ন এলাকায় শীতবস্ত্র(কম্বল) বিতরণ করছেন তিনি।এ সময় তার সাথে তার ইউনিয়নের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এক আদিবাসী বৃদ্ধা বলেন শীত যায়,শীত আসে, অনেকেই সহযোগিতা পেলেও আমরা আদিবাসী পল্লীর বাসিন্দারা অনেকটাই অবহেলিত।আমাদের চেয়ারম্যান নিজে এসে আমাদের মাঝে কম্বল দিয়েছেন।কম্বল পাওয়ায় আমাদের অনেক উপকার হয়েছে।

শীতের তীব্রতায় যখন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন তখনই  তীব্রতাকে উপেক্ষা করে শীতবস্ত্র নিয়ে অসহায় দরিদ্র মানুষদের বাড়ি বাড়ি ছুটেছেন তিনি।

কুচিয়ামোড় গ্রামের বৃদ্ধ আনছার আলী বলেন, আমার অসহায় বৃদ্ধা মা কয়েকদিন ধরে শীতে কষ্ট পাচ্ছিলেন।মা চেয়ারম্যানের হাতে কম্বল পেয়েছে খুব ভালো লাগছে।

চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মালেক মন্ডল বলেন,এই শীতে গরিব মানুষগুলো খুব অসহায়।তাদের অনেকের শীতবস্ত্র কেনার সামর্থ্য নেই।তাই সবার উচিত এই কনকনে শীতে দরিদ্র অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানো।আমরা প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া শীতবস্ত্র (কম্বল) নিয়ে প্রকৃত অসহায় দরিদ্রদের মাঝে  বিতরণের লক্ষ্যে বের হয়েছি।সরকারি নির্দেশনায় শীতার্তদের মাঝে এ শীতবস্ত্র বিতরণ অব্যাহত থাকবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ