বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:০৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বিদেশে নেয়ার নাম করে অর্থ আত্মসাৎ,থানায় অভিযোগ বিরামপুরের ৪নং দিওড় ইউনিয়নে ভিডব্লিউবির চাল বিতরণ বিএমএসএফ’র সাংগঠনিক কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা সিরাজগঞ্জে বিএসটিআইয়ের অভিযানে মান সনদ না থাকায় ইটভাটা ও রেস্টুরেন্টকে জরিমানা নবাবগঞ্জে জমিজামা সংক্রান্ত কলহে প্রতিপক্ষকে মারপিট ও বাড়ী ভাঙচুর-লুটপাট,থানায় মামলা সারিয়াকান্দিতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত বর্তমান সময়ের সেরা রোমান্টিক জুটি নয়ন-অধরা নাগরপুরে দুই দিনব্যাপী অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধন সারিয়াকান্দিতে যায়যায়দিন ফ্রেন্ডস ফোরামের আহ্বায়ক কমিটি গঠন তিন দিনের বাংলাদেশ সফরে ভারতীয় বিমানবাহিনীর প্রধান
নোটিশ :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘যমুনা প্রতিদিন ডট কম’

একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর ক্ষমতা

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হল গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নির্বাহী বিভাগের ম্যাজিস্ট্রেট যারা বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (প্রশাসন) এর মাধ্যমে নিয়োগ প্রাপ্ত।

বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (প্রশাসন) থেকে নিয়োগপ্রাপ্তদের সাধারণত পদ হলো সহকারী কমিশনার, ম্যাজিস্ট্রেট নয়।তবে, ফৌজদারি কার্যবিধির ধারা ১০(৫) অনুযায়ী সরকার চাইলে প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদেরকে সীমিত আকারে ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতা অর্পণ করতে পারে।তখন তাদেরকে বলা হয় “নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (Executive Magistrate)”।তারা সাধারণত তাদের নিজ নিজ এখতিয়ারে নির্বাহী এবং সীমিত বিচারিক ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারে।

কোন সহকারী কমিশনার (প্রশাসন)-কে ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে পরিচয় দিতে হলে অবশ্যই বলতে হবে “নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট’’ (Executive Magistrate)।একটি জেলার সর্বোচ্চ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে বলা হয় ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর কাজ

বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস এর প্রশাসন ক্যাডারগণ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।কর্মক্ষেত্রে তারা সীমিত বিচারিক ক্ষমতা লাভ করেন।দি কোড অফ ক্রিমিনাল প্রসিডউর, ১৮৯৮ এর বিধান অনুসারে, তাদের কর্মপরিধি নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ বিভিন্ন সামাজিক সমস্যায় (যেমন খাদ্যে ভেজাল, ইভটিজিং, মাদকদ্রব্য চোরাচালান, সরকারি সম্পত্তি বেদখল ইত্যাদির জন্য) মোবাইল কোর্ট বা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন (মোবাইল কোর্ট আইন ২০০৯, ধারা ৫)।

পুলিশের ASP পদমর্যাদার ব্যক্তিদেরকে কিংবা বোর্ড পরিক্ষা ও বিভিন্ন সরকারী পরীক্ষায় দায়িত্ব পালনের সময় সরকারি কলেজের শিক্ষকদেরকেও (বিসিএস শিক্ষা ক্যাডার) সরকার ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা অর্পণ করতে পারেন, যাকে স্পেশাল এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট বলে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতা :

ফৌজদারি কার্যবিধি, ১৮৯৮ এর তফসিল-iii এর বিধান অনুসারে, একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সাধারণ ক্ষমতা হল-

১. ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে অপরাধ সংঘটনকারী ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করার বা গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেওয়ার এবং হেফাজতে রাখার ক্ষমতা। (ধারা-৬৪)

২. গ্রেপ্তার করার ক্ষমতা, বা গ্রেপ্তারের জন্য তিনি পরোয়ানা জারি করতে পারেন। (ধারা-৬৫)

৩. ওয়ারেন্ট অনুমোদন করার ক্ষমতা বা ওয়ারেন্ট ধারার অধীনে গ্রেফতারকৃত অভিযুক্ত ব্যক্তিকে অপসারণের আদেশ দেওয়ার ক্ষমতা। (ধারা-৮৩, ৮৪, ৮৬)

৪. ডকুমেন্ট ইত্যাদির জন্য ডাক ও টেলিগ্রাফ কর্তৃপক্ষের দ্বারা অনুসন্ধান এবং আটক করার ক্ষমতা।(ধারা-৯৫)

৫. অন্যায়ভাবে বন্দী ব্যক্তিদের খোজার জন্য অনুসন্ধান পরোয়ানা জারি করার ক্ষমতা।(ধারা-১০০)

৬. সরাসরি তল্লাশি করার ক্ষমতা। (ধারা-১০৫)

৭. শান্তি বজায় রাখার জন্য নিরাপত্তা প্রয়োজনের ক্ষমতা (ধারা-১০৭)।

৮. শান্তি বজায় রাখতে বা ভাল আচরণের জন্য আবদ্ধ ব্যক্তিদের অব্যাহতি দেওয়ার ক্ষমতা (ধারা-১২৪)।

৯. অভ্যাসগত অপরাধীদের কাছ থেকে ভাল আচরণের জন্য জামিন প্রদানের ক্ষমতা (ধারা-১২৬)

১০. বেআইনি সমাবেশকে ছত্রভঙ্গ করার নির্দেশ দেওয়ার ক্ষমতা (ধারা-১২৭)

১১. ছত্রভঙ্গ করার জন্য বেসামরিক শক্তি ব্যবহারের ক্ষমতা (ধারা-১২৮)

১২. বেআইনি সমাবেশকে ছত্রভঙ্গ করার জন্য সামরিক শক্তি ব্যবহার করার ক্ষমতা (ধারা-১৩০)

১৩. জনসাধারণের উপদ্রবের ক্ষেত্রে তাত্ক্ষণিক ব্যবস্থা হিসাবে একটি আদেশ জারি করার ক্ষমতা (ধারা-১৪২)

১৪. স্থানীয় তদন্ত করার জন্য তার অধস্তন যে কোন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে নিযুক্ত করার ক্ষমতা (ধারা-১৪৮)।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ