ঢাকা ০৬:০৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল 'যমুনা প্রতিদিন ডট কম' এ সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।

সাপাহারে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

গোলাপ খন্দকার,সাপাহার প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় : ০৬:৩৫:২৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ ৪৩০ বার পড়া হয়েছে
যমুনা প্রতিদিন অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নওগাঁর সাপাহারে খুশি আক্তার (১৮) নামের এক মাদ্রাসা পড়ুয়া অষ্টাদশির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে সাপাহার থানা পুলিশ।

উদ্ধারকৃতা সাপাহার উপজেলার বাবুপুর গ্রামের রফিকুল ইসলাম এর মেয়ে।

সাপাহার থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, মাদ্রাসার একাদশ শ্রেণীতে পড়ুয়া খুশি আক্তার মঙ্গলবার সকালে তার মা’র সাথে কথা কাটাকাটি করে মায়ের উপর অভিমান করে তার শয়নঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। তার বাবা কাজ করতে মাঠে য়ায় এবং মা বাসার বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকে। দুপুরে তার বাবা বাসায় ফিরে মেয়ের ঘরের দরজা বন্ধ দেখে তাদের সন্দেহ হয় এবং দরজা ভিতর থেকে বন্ধ থাকায় তাদের সন্দেহ আরোও বেড়ে যায়। পরে লোকজন ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরের মধ্যে ফ্যানের সাথে মেয়েকে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখে তার বাবা ও মা চিৎকার শুরু করে।

বিকেলে বিষয়টি স্থানীয় থানায় জানালে সন্ধ্যে সাড়ে ৫টার দিকে পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো খুশি আক্তারের মরা দেহ উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নেয়।

এবিষয়ে সাপাহার থানার (ওসি) তদন্ত হাবিবুর রহমানের সাথে কথা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন যে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করা হয়েছে এবং ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।প্রাথমিকভাবে এবিষয়ে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

সাপাহারে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

আপডেট সময় : ০৬:৩৫:২৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৩

নওগাঁর সাপাহারে খুশি আক্তার (১৮) নামের এক মাদ্রাসা পড়ুয়া অষ্টাদশির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে সাপাহার থানা পুলিশ।

উদ্ধারকৃতা সাপাহার উপজেলার বাবুপুর গ্রামের রফিকুল ইসলাম এর মেয়ে।

সাপাহার থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, মাদ্রাসার একাদশ শ্রেণীতে পড়ুয়া খুশি আক্তার মঙ্গলবার সকালে তার মা’র সাথে কথা কাটাকাটি করে মায়ের উপর অভিমান করে তার শয়নঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। তার বাবা কাজ করতে মাঠে য়ায় এবং মা বাসার বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকে। দুপুরে তার বাবা বাসায় ফিরে মেয়ের ঘরের দরজা বন্ধ দেখে তাদের সন্দেহ হয় এবং দরজা ভিতর থেকে বন্ধ থাকায় তাদের সন্দেহ আরোও বেড়ে যায়। পরে লোকজন ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরের মধ্যে ফ্যানের সাথে মেয়েকে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখে তার বাবা ও মা চিৎকার শুরু করে।

বিকেলে বিষয়টি স্থানীয় থানায় জানালে সন্ধ্যে সাড়ে ৫টার দিকে পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো খুশি আক্তারের মরা দেহ উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নেয়।

এবিষয়ে সাপাহার থানার (ওসি) তদন্ত হাবিবুর রহমানের সাথে কথা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন যে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করা হয়েছে এবং ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।প্রাথমিকভাবে এবিষয়ে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে।