মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৫:৪৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সারিয়াকান্দিতে নিখোঁজের ৯ দিন পর ফুফাতো ভাইয়ের বাড়ি থেকে শিক্ষার্থীর বস্তাবন্দী অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার বাঘায় অভিযান চালিয়ে দুটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ বাঘায় বকেয়া বিলের লাইন বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে মারধরের শিকার লাইনম্যান সোনাতলায় রাস্তার পাশে ঝুকিপূর্ণ পুকুর খননের অভিযোগ,হুমকিতে বসতভিটা ও রাস্তা মিতালী এক্সপ্রেসের ইঞ্জিনের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুইজনের বাগমারায় হাত বাড়ালেই মিলছে মাদক,উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা তাহেরপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের অভিযানে শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী জুয়েল গ্রেফতার রাজশাহীতে র‍্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী ও ৪ মাদকসেবী গ্রেফতার রাজশাহীর লক্ষীপুরে ওয়ানওয়ে রাস্তা খুলে দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন রাজশাহীতে ফেব্রুয়ারী মাসে ১০ নারী-শিশু নির্যাতনের শিকার
নোটিশ :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘যমুনা প্রতিদিন ডট কম’

দিনাজপুর-৪ আসনে নৌকার মাঝি আবুল হাসান মাহমুদ আলী

সকল জল্পনা-কল্পনা শেষে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দিনাজপুর-৪ (চিরিরবন্দর-খানসামা) আসন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক সফল পররাষ্ট্র মন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী ১৯৪৩ সালের ২ জুন তৎকালীন ব্রিটিশ ভারত বর্তমান বাংলাদেশের দিনাজপুর জেলার খানসামা উপজেলার (ডাক্তারপাড়া) গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে ১৯৬২ সালে বি.এ. এবং ১৯৬৩ সাল এম.এ. ডিগ্রি অর্জন করেন।এরপর তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৯৬৪ থেকে ১৯৬৬ পর্যন্ত অর্থনীতি বিভাগের প্রভাষক ছিলেন।

কূটনৈতিক জীবনে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঢাকাস্থ প্রধান কার্যালয়সহ বিদেশস্থ বাংলাদেশের বিভিন্ন মিশন যেমন নিউ ইয়র্ক (ভাইস কনসাল, কনসাল জেনারেলের চলতি দায়িত্ব), নতুন দিল্লী (প্রথম সচিব, কাউন্সেলর এবং উপ-হাইকমিশনার) এবং বেইজিংয়ে রাষ্ট্রদূতের পদমর্যাদায় উপ-মিশন প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী ভুটানে (১৯৮৬-১৯৯০), অষ্ট্রিয়ার, চেক রিপাবলিক এবং স্লোভাক রিপাবলিক- এর সমবর্তী দায়িত্বসহ জার্মানীতে (১৯৯২-৯৫) ও নেপালে (ফেব্রুয়ারী থেকে অক্টোবর ১৯৯৬) রাষ্ট্রদূত এবং আয়ারল্যান্ডের সমবর্তী দায়িত্বসহ যুক্তরাজ্যে (১৯৯৬-২০০১) হাইকমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী আয়ারল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রদূত।এছাড়া আন্তর্জাতিক সম্মেলন ও অন্যান্য কার্য উপলক্ষে জনাব আবুল হাসান মাহমুদ আলী পৃথিবীর বহুদেশ ভ্রমণ করেছেন।ঢাকাস্থ প্রধান কার্যালয়ে তিনি প্রশাসন; আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহ; জাতিসংঘ ও অর্থনৈতিক বিষয়াবলী; পলিসি প্ল্যানিং এবং দক্ষিণ এশিয়া ও মানবাধিকার শাখাসমুহে মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

অতিরিক্ত পররাষ্ট্র সচিব (দ্বিপাক্ষিক) হিসেবে তিনি ১৯৯২ সালে ভারতের সাথে তিন বিঘা করিডোর বাস্তবায়ন চুক্তির নেগোসিয়েশন ও চুক্তি স্বাক্ষর করেন।তিনি একই বছরে মিয়ানমারের সাথে মিয়ানমার শরণার্থীদের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন চুক্তির প্রনয়ণ ও অনুস্বাক্ষর করেন।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী একজন সাহসী মুক্তিযোদ্ধা এবং ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধের কূটনৈতিক ফ্রন্টে তার অপরিমেয় অবদান রয়েছে।বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য তিনি যুক্তরাষ্ট্র ও জাতিসংঘে কাজ করেছেন।১৯৬৮ সালে নিউইয়র্কে পৌঁছার পর পরই তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত বাঙালী সমাজকে এ ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করেন।

১৯৭১ সালের ২৬ এপ্রিল তিনি বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আনুগত্য ঘোষণা করেন এবং সে বছরের মে মাসে মুজিবনগরে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত হন।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী মুজিবনগর সরকারের বিদেশস্থ প্রতিনিধি প্রধান এবং ১৯৭১ সালে জাতিসংঘে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের প্রধান বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরীর নির্বাহী সহকারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।আবুল হাসান মাহমুদ আলী ২০০১ সালের এপ্রিল মাসে সরকারী চাকুরী হতে অবসর গ্রহণ করেন।

বিভিন্ন দেশের কুটনৈতিক দ্বায়িত্ব পালন শেষে বাংলাদেশে ফেরার পর আবুল হাসান মাহমুদ আলী ২০০১ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে যোগ দেন এবং আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন।

২০০২ সালে তিনি কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা কমিটির সদস্য হন।এরপর তিনি আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপকমিটির কো-চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

২০০৮ সালের সাধারণ নির্বাচনে আবুল হাসান মাহমুদ আলী দিনাজপুর ৪ (চিরিরবন্দর-খানসামা) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।তিনি ৯ম জাতীয় সংসদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ছিলেন।

২০১২ সালে ১৩ সেপ্টেম্বর আবুল হাসান মাহমুদ আলী দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেন এবং ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৩ পর্যন্ত এ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ছিলেন।

২০১৩ সালে আবুল হাসান মাহমুদ আলী বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্ব পান।

২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে তিনি পুনরায় পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ করেন।

২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

অবসরে আবুল হাসান মাহমুদ আলী পছন্দ করেন বই পড়তে। খেলাধুলা বিষয়ে তিনি খুবই উৎসাহী বিশেষ করে টেনিস তাঁর প্রিয় খেলা।ব্যক্তিগত জীবনে জনাব ও বেগম মাহমুদ আলীর দুজন সুপ্রতিষ্ঠিত পুত্র সন্তান রয়েছেন।

২৬ নভেম্বর (রবিবার) বিকাল ৪টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দলীয় মনোনীত প্রার্থীদের নাম ঘোষণা শুরু করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান ও দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কামরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, মাহবুব উল আলম হানিফ, দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, শফিকুল ইসলাম নাদেল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদকসহ কেন্দ্রীয় ও দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা।

চিরিরবন্দর-খানসামার সচেতন মহল বলছেন, আবুল হাসান মাহমুদ আলী ব্যক্তি ও কর্মজীবনে যতটা সফল রাজনৈতিক জীবনে কতটা সফল হন সেটা দেখার অপেক্ষায় চিরিরবন্দর ও খানসামা উপজেলাবাসি।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২০২৪ সালের ৭ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ