ঢাকা ১০:৪৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল 'যমুনা প্রতিদিন ডট কম' এ সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।

ঈশ্বরদীতে নিপাহ ভাইরাসে শিশুর মৃত্যু : তদন্তে আইইডিসিআর প্রতিনিধি দল

স্বপন কুমার কুন্ডুঃ
  • আপডেট সময় : ০৪:৫৪:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ ২০ বার পড়া হয়েছে
যমুনা প্রতিদিন অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

খেজুরের রস খেয়ে নিপাহ ভাইরাসে শিশু সোয়াদের (৭) মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে ঢাকা থেকে ১২ সদস্যের রোগতত্ত, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) প্রতিনিধি ঈশ্বরদীতে সোয়াদের বাড়িতে আসে।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে আইইডিসিআরের সায়েন্টিফিক অফিসার ডা. কাইয়ুমের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল সোয়াদের বাড়িতে পৌঁছায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা ডা. আসমা খান উপস্থিত এসময় ছিলেন।

ডা: আসমা খান জানান, প্রতিনিধি দলের সদস্যরা শিশু সোয়াদের পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলেন এবং খেজুরের রস প্রসঙ্গে বিস্তারিত জানতে চান।

তবে আইইডিসিআর প্রতিনিধি দলের প্রধান ডা. কাইয়ুম এ বিষয়ে গণমাধ্যমের কাছে তৎণাৎ কিছু জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন।ঢাকায় ফিরে অফিসিয়ালভাবে এ বিষয়ে জানানো হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) ভোরে ঈশ্বরদীর সাহাপুর ইউনিয়নের দিঘা গ্রামের সানাউল হোসেনের ছেলে সোয়াদ নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। সোয়াদের নানা বাড়ি থেকে গত ১৭ জানুয়ারি খেজুরের রস পাঠানো হয়। সে রস পান করে সোয়াদ ঠান্ডা-জ্বরে আক্রান্ত হয়।

২০ জানুয়ারি সকালে সোয়াদকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।সেসময় সোয়াদের শরীরে জ্বর তীব্র ছিল। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ওইদিন বিকেলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন সোমবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ঈশ্বরদীতে নিপাহ ভাইরাসে শিশুর মৃত্যু : তদন্তে আইইডিসিআর প্রতিনিধি দল

আপডেট সময় : ০৪:৫৪:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৩

খেজুরের রস খেয়ে নিপাহ ভাইরাসে শিশু সোয়াদের (৭) মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে ঢাকা থেকে ১২ সদস্যের রোগতত্ত, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) প্রতিনিধি ঈশ্বরদীতে সোয়াদের বাড়িতে আসে।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে আইইডিসিআরের সায়েন্টিফিক অফিসার ডা. কাইয়ুমের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল সোয়াদের বাড়িতে পৌঁছায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা ডা. আসমা খান উপস্থিত এসময় ছিলেন।

ডা: আসমা খান জানান, প্রতিনিধি দলের সদস্যরা শিশু সোয়াদের পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলেন এবং খেজুরের রস প্রসঙ্গে বিস্তারিত জানতে চান।

তবে আইইডিসিআর প্রতিনিধি দলের প্রধান ডা. কাইয়ুম এ বিষয়ে গণমাধ্যমের কাছে তৎণাৎ কিছু জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন।ঢাকায় ফিরে অফিসিয়ালভাবে এ বিষয়ে জানানো হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) ভোরে ঈশ্বরদীর সাহাপুর ইউনিয়নের দিঘা গ্রামের সানাউল হোসেনের ছেলে সোয়াদ নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। সোয়াদের নানা বাড়ি থেকে গত ১৭ জানুয়ারি খেজুরের রস পাঠানো হয়। সে রস পান করে সোয়াদ ঠান্ডা-জ্বরে আক্রান্ত হয়।

২০ জানুয়ারি সকালে সোয়াদকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।সেসময় সোয়াদের শরীরে জ্বর তীব্র ছিল। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ওইদিন বিকেলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন সোমবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।