ঢাকা ০৭:৩২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল 'যমুনা প্রতিদিন ডট কম' এ সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।

ভবিষ্যতে সামাজিক নিরাপত্তার আওতা আরও বাড়াবে সরকার-খাদ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক,যমুনা প্রতিদিন
  • আপডেট সময় : ০২:১৭:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৩ ৪১ বার পড়া হয়েছে
যমুনা প্রতিদিন অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বর্তমান সরকার সামাজিক নিরাপত্তার ক্ষেত্র বাড়িয়েছে। প্রতিটি ইউনিয়নে এখন ছয়-সাত হাজার মানুষ প্রত্যক্ষভাবে সরকারি সুবিধা ভোগ করছে।ভবিষ্যতে সামাজিক নিরাপত্তার আওতা সরকার আরো বাড়াবে বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

আজ রবিবার বেলা ১১টায় নওগাঁর পোরশা উপজেলার গাঙ্গুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল হতে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

দেশের উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে খাদ্যমন্ত্রী বলেন,এমন কোন ক্ষেত্র নাই যেখানে বর্তমান সরকারের অনুদান পৌঁছে নাই।উন্নয়ন হয়েছে সব ক্ষেত্রে।উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে শেখ হাসিনাকেই আবারও দেশের রাষ্ট্র ক্ষমতায় রাখতে হবে।

গরীব অসহায় মানুষের পাশে সরকার সব সময় ছিলো, এখনও আছে, ভবিষ্যতেও থাকবে মন্তব্য করে সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন,প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শীতার্ত মানুষের জন্য এ কম্বল দিয়েছেন।প্রতিটি ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা শীতার্ত মানুষের কাছে এ শীতবস্ত্র পৌঁছে দিবে।এসময় তিনি সমাজের বিত্তবানদের শীতার্তদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান।

তিনি আরও বলেন,গরীব মানুষ খাদ্য বান্ধব কর্মসূচিতে বিনামূল্যে চাল পাচ্ছে,ওএমএসে স্বল্পমূল্যে চাল আটা পাচ্ছে।কৃষকও এখন ফসলের নায্য মূল্য পাচ্ছে।শেখ হাসিনা আছে বলেই কৃষিতে আমরা অনেক উন্নতি করেছি। ধু ধু মাঠে এখন ফসল হয়,আমের বাগানে আম হয়।জমিতে সেচ ও সারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।মানুষকে এখন সিদ্ধান্ত নিতে হবে তাঁরা উন্নয়নের পক্ষে থাকবে নাকি আগুন সন্ত্রাসের পক্ষে যাবে।

শীতবস্ত্র বিতরণকালে পোরশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকির হোসেন,উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ মঞ্জুর মোর্শেদ চৌধুরী,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জ্বল হোসেন,ত্রিশুলের সভাপতি ও খাদ্যমন্ত্রীর কনিষ্ঠ কন্যা তৃণা মজুমদার ও গাঙ্গুরিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য এ কর্মসূচির আওতায় নিয়ামতপুর-পোরশা-সাপাহার উপজেলার ২০টি ইউনিয়নে ১০ হাজার পিস কম্বল,৫ হাজার পিস চাদর ও ১ হাজার সোয়েটার শীতার্ত মানুষের মাঝে বিতরণ করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ভবিষ্যতে সামাজিক নিরাপত্তার আওতা আরও বাড়াবে সরকার-খাদ্যমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০২:১৭:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৩

বর্তমান সরকার সামাজিক নিরাপত্তার ক্ষেত্র বাড়িয়েছে। প্রতিটি ইউনিয়নে এখন ছয়-সাত হাজার মানুষ প্রত্যক্ষভাবে সরকারি সুবিধা ভোগ করছে।ভবিষ্যতে সামাজিক নিরাপত্তার আওতা সরকার আরো বাড়াবে বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

আজ রবিবার বেলা ১১টায় নওগাঁর পোরশা উপজেলার গাঙ্গুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল হতে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

দেশের উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে খাদ্যমন্ত্রী বলেন,এমন কোন ক্ষেত্র নাই যেখানে বর্তমান সরকারের অনুদান পৌঁছে নাই।উন্নয়ন হয়েছে সব ক্ষেত্রে।উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে শেখ হাসিনাকেই আবারও দেশের রাষ্ট্র ক্ষমতায় রাখতে হবে।

গরীব অসহায় মানুষের পাশে সরকার সব সময় ছিলো, এখনও আছে, ভবিষ্যতেও থাকবে মন্তব্য করে সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন,প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শীতার্ত মানুষের জন্য এ কম্বল দিয়েছেন।প্রতিটি ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা শীতার্ত মানুষের কাছে এ শীতবস্ত্র পৌঁছে দিবে।এসময় তিনি সমাজের বিত্তবানদের শীতার্তদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান।

তিনি আরও বলেন,গরীব মানুষ খাদ্য বান্ধব কর্মসূচিতে বিনামূল্যে চাল পাচ্ছে,ওএমএসে স্বল্পমূল্যে চাল আটা পাচ্ছে।কৃষকও এখন ফসলের নায্য মূল্য পাচ্ছে।শেখ হাসিনা আছে বলেই কৃষিতে আমরা অনেক উন্নতি করেছি। ধু ধু মাঠে এখন ফসল হয়,আমের বাগানে আম হয়।জমিতে সেচ ও সারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।মানুষকে এখন সিদ্ধান্ত নিতে হবে তাঁরা উন্নয়নের পক্ষে থাকবে নাকি আগুন সন্ত্রাসের পক্ষে যাবে।

শীতবস্ত্র বিতরণকালে পোরশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকির হোসেন,উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ মঞ্জুর মোর্শেদ চৌধুরী,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জ্বল হোসেন,ত্রিশুলের সভাপতি ও খাদ্যমন্ত্রীর কনিষ্ঠ কন্যা তৃণা মজুমদার ও গাঙ্গুরিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য এ কর্মসূচির আওতায় নিয়ামতপুর-পোরশা-সাপাহার উপজেলার ২০টি ইউনিয়নে ১০ হাজার পিস কম্বল,৫ হাজার পিস চাদর ও ১ হাজার সোয়েটার শীতার্ত মানুষের মাঝে বিতরণ করা হয়।