মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ১০:০৮ অপরাহ্ন
নোটিশ :
দেশের জনপ্রিয় সর্বাধুনিক নিয়ম-নীতি অনুসরণকৃত রাজশাহী কর্তৃক প্রকাশিত নতুনধারার অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘যমুনা প্রতিদিন ডট কম’

নৌকার গণসংযোগ করায় রাজশাহীতে দুই যুবলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা

রাজশাহীতে নবজাতক চুরি ঘটনায় মোটা অংকের উৎকোচ নেওয়ার পর এবার অর্থের বিনিময়ে দুই যুবলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দিলেন রাজপাড়া থানা পুলিশ।

গত ২২ মে (সোমবার) রাজপাড়া থানায় বিএনপি-জামাতের নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে নাশকতা মামলা করেন এস আই জলিল।সেই মামলায় দুই যুবলীগ কর্মীর নাম ঢুকানো হয়েছে।

এজাহার সুত্রে জানা যায়, নাশকতা ঐ মামলায় ১২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১৫/২০ জনের নামে মামলা হয়।মামলায় ৯ নং আসামী দাশপুকুর এলাকার আবু’র ছেলে যুবলীগ কর্মী হেলাল ও ১০ নং আসামী কাজীহাটা এলাকার মুর্তজা’র ছেলে লালনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

ভুক্তভোগী ঐ দুই যুবলীগ কর্মী বলেন, নৌকার পক্ষে আমরা গণসংযোগ করছিলাম।এতে কাউন্সিলর প্রার্থীরা আমাদেরকে তাদের পক্ষে কাজ করার জন্য বলেন।আমরা নৌকার ছাড়া অন্য কারো কাজ করবো না মর্মে সাফ জানিয়ে দেই।এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ঐ প্রার্থীরা নাশকতা মামলায় আমাদের নাম ঢুকিয়ে দেয়।নাম ঢুকাতে বড় রকমের অর্থের লেনদেন হয়েছে বলেও জানান তারা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বলেন, থানা এলাকার কয়েকজনের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলার ভয় দেখিয়ে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন ওসির দ্বায়িত্ব পালনকারী এস আই কাজল নন্দি।

তাঁরা এও বলেন, দুই ওয়ার্ডের দুজন কাউন্সিলর প্রার্থীর নিকট মোটা অংকের টাকা নিয়ে ওয়ার্ড যুবলীগ কর্মীর নাম ঢুকানো হয়েছে।

জানতে চাইলে রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সভাপতি রমজান আলী বলেন, আমি অবাক হয়েছি ওয়ার্ড যুবলীগের দুই কর্মীর নাম নাশকতা মামলায় ঢুকানো হয়েছে।তারা আমাদের একনিষ্ঠ কর্মী।একসাথে নৌকার গণসংযোগ করছি।কি কারণে তাদের নাম নাশকতা মামলায় দেওয়া হয়েছে তা আমরা দেখছি।বিষয়টি আমরা আমাদের রাজনৈতিক অভিভাবক এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন ভাইকে জানিয়েছি।

দুই যুবলীগ কর্মীর নাম নাশকতা মামলায় কিভাবে আসলো জানতে চেয়ে প্রশ্ন করা হলে রাজপাড়া থানার ওসি’র দ্বায়িত্ব পালনকারী এস আই কাজল নন্দি বলেন, ভালোভাবে এজাহার পড়ুন, সব বুঝতে পারবেন।

কথা বললে আরএমপি পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেন, মিডিয়া মুখপাত্র হিসেবে সব বিষয় তো আমার জানা থাকার কথা না।আমার কাজ হলো সংবাদসমূহ মিডিয়া কর্মীদের কাছে পাঠানো।যদি এ বিষয়ে কারো কোনো অভিযোগ থাকে তাহলে সরাসরি লিখিত অভিযোগ দিতে হবে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি রয়েল হাসপাতালে নবজাতক চুরি’র ঘটনায় কয়েক দফায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে গোপন বৈঠক করে মোটা অংকের উৎকোচ নেয় এস আই কাজল নন্দি।যা ইতোপূর্বে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × 1 =


অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ

x